????????

ছোট সূরাহসমূহ

সুরা ইয়াসিন

يس
ইয়া-সী-ন্



وَالْقُرْآنِ الْحَكِيمِ
অল্ ক্বর্ আ-নিল্ হাকীম্।



إِنَّكَ لَمِنَ الْمُرْسَلِينَ
ইন্নাকা লামিনাল্ র্মুসালীন্।



عَلَى صِرَاطٍ مُسْتَقِيمٍ
‘আলা-ছির-ত্বিম্ মুস্তাক্বীম্ ।


تَنْزِيلَ الْعَزِيزِ الرَّحِيمِ
তান্যীলাল্ ‘আযীর্যি রহীম্।



لِتُنْذِرَ قَوْمًا مَا أُنْذِرَ آبَاؤُهُمْ فَهُمْ غَافِلُونَ
লিতুন্যিরা ক্বওমাম্ মা য়উন্যিরা আ-বা-য়ুহুম্ ফাহুম্ গ-ফিলূন্ ।



لَقَدْ حَقَّ الْقَوْلُ عَلَى أَكْثَرِهِمْ فَهُمْ لَا يُؤْمِنُونَ
লাক্বাদ্ হাকক্বল্ ক্বওলু ‘আলা য় আক্ছারিহিম্ ফাহুম্ লা-ইয়ুমিনূন্।


إِنَّا جَعَلْنَا فِي أَعْنَاقِهِمْ أَغْلَالًا فَهِيَ إِلَى الْأَذْقَانِ فَهُمْ مُقْمَحُونَ
ইন্না-জ্বা‘আল্না-ফী য় আ’না-ক্বিহিম্ আগ্লা-লান্ ফাহিয়া ইলাল্ আয্ক্বা-নি ফাহুম্ মুকমাহূন্।

وَجَعَلْنَا مِنْ بَيْنِ أَيْدِيهِمْ سَدًّا وَمِنْ خَلْفِهِمْ سَدًّا فَأَغْشَيْنَاهُمْ فَهُمْ لَا يُبْصِرُونَ
অজ্বা‘আল্না-মিম্ বাইনি আইদী হিম্ সাদ্দাঁও মিন্ খল্ফিহিম্ সাদ্দান্ ফায়াগ্শাইনা-হুম ফাহুম্ লা-ইয়ুব্ছিরূন্।

وَسَوَاءٌ عَلَيْهِمْ أَأَنْذَرْتَهُمْ أَمْ لَمْ تُنْذِرْهُمْ لَا يُؤْمِنُونَ
অসাওয়া-য়ুন্ ‘আলাইহিম্ আ আর্ন্যাতাহুম্ আম্ লাম্ তুর্ন্যিহুম্ লা-ইয়ুমিনূন্।

إِنَّمَا تُنْذِرُ مَنِ اتَّبَعَ الذِّكْرَ وَخَشِيَ الرَّحْمَنَ بِالْغَيْبِ فَبَشِّرْهُ بِمَغْفِرَةٍ وَأَجْرٍ كَرِيمٍ
ইন্নামা-তুন্যিরু মানিত্তাবা‘আয্ যিকর অখশির্য়া রাহ্মা-না বিল্গাইবি ফাবার্শ্শিহু বিমাগ্ফিরতিঁও অআজরিন্ কারীম্।

إِنَّا نَحْنُ نُحْيِي الْمَوْتَى وَنَكْتُبُ مَا قَدَّمُوا وَآثَارَهُمْ وَكُلَّ شَيْءٍ أحْصَيْنَاهُ فِي إِمَامٍ مُبِينٍ
ইন্না-নাহ্নু নুহ্য়িল্ মাওতা- অনাক্তুবু মা-ক্বাদ্দামূ অআ-ছা-রহুম্; অকুল্লা শাইয়িন্ আহ্ছোয়াইনা-হু ফী য় ইমা-মিম্ মুবীন্।

وَاضْرِبْ لَهُمْ مَثَلًا أَصْحَابَ الْقَرْيَةِ إِذْ جَاءَهَا الْمُرْسَلُونَ
অদ্ব্রিব্ লাহুম্ মাছালান্ আছ্হা-বাল্ র্ক্বইয়াহ্; ইয্ জ্বা-য়াহাল্ র্মুসালূন্।

إِذْ أَرْسَلْنَا إِلَيْهِمُ اثْنَيْنِ فَكَذَّبُوهُمَا فَعَزَّزْنَا بِثَالِثٍ فَقَالُوا إِنَّا إِلَيْكُمْ مُرْسَلُونَ
ইয্ র্আসালনা য় ইলাইহিমুছ্ নাইনি ফাকায্যাবূহুমা- ফা‘আয্যায্না-বিছা-লিছিন্ ফাক্ব-লূ য় ইন্না য় ইলাইকুম্ র্মুসালূন্।

قَالُوا مَا أَنْتُمْ إِلَّا بَشَرٌ مِثْلُنَا وَمَا أَنْزَلَ الرَّحْمَنُ مِنْ شَيْءٍ إِنْ أَنْتُمْ إِلَّا تَكْذِبُونَ
ক্বা-লূ মা য় আন্তুম ইল্লা-বাশারুম্ মিছ্লুনা- অমা য় আন্যার্লা রহ্মা-নু মিন্ শাইয়িন্ ইন্ আন্তুম ইল্লা-তাক্যিবূন্।

قَالُوا رَبُّنَا يَعْلَمُ إِنَّا إِلَيْكُمْ لَمُرْسَلُونَ
ক্ব-লূ রব্বুনা-ইয়া’লামু ইন্না য় ইলাইকুম্ লার্মুসালূন্।

وَمَا عَلَيْنَا إِلَّا الْبَلَاغُ الْمُبِينُ
অমা- ‘আলাইনা য় ইল্লাল্ বালা-গুল্ মুবীন্।

قَالُوا إِنَّا تَطَيَّرْنَا بِكُمْ لَئِنْ لَمْ تَنْتَهُوا لَنَرْجُمَنَّكُمْ وَلَيَمَسَّنَّكُمْ مِنَّا عَذَابٌ أَلِيمٌ
ক্ব-লূ য় ইন্না-তাত্বোয়াইর্য়্যানা-বিকুম্, লায়িল্লাম্ তান্তাহূ লার্না জুমান্নাকুম্ অলা-ইয়ামাস্ সান্নাকুম্ মিন্না-‘আযা- বুন্ আলীম্।

قَالُوا طَائِرُكُمْ مَعَكُمْ أَئِنْ ذُكِّرْتُمْ بَلْ أَنْتُمْ قَوْمٌ مُسْرِفُونَ
ক্ব-লূ ত্বোয়া-য়িরুকুম্ মা‘আকুম্ আয়িন্ যুর্ক্কিতুম্; বাল্ আন্তুম্ ক্বওমুম্ মুস্রিফূন্।

وَجَاءَ مِنْ أَقْصَى الْمَدِينَةِ رَجُلٌ يَسْعَى قَالَ يَا قَوْمِ اتَّبِعُوا الْمُرْسَلِينَ
অজ্বা-য়া মিন্ আকছোয়াল্ মাদীনাতি রাজুলুঁই ইয়াস্‘আ-ক্ব-লা ইয়া-ক্বওমিত তাবি‘উল্ মুরসালীন্

اتَّبِعُوا مَنْ لَا يَسْأَلُكُمْ أَجْرًا وَهُمْ مُهْتَدُونَ
ইত্তাবি‘ঊ মাল্লা-ইয়াস্য়ালুকুম্ আজরঁও অহুম্ মুহ্তাদূন্।

وَمَا لِيَ لَا أَعْبُدُ الَّذِي فَطَرَنِي وَإِلَيْهِ تُرْجَعُونَ
অমা-লিয়া লা য় আ’বুদুল্লাযী ফাত্বোয়ারানী অ ইলাইহি র্তুজ্বা‘ঊন্।

أَأَتَّخِذُ مِنْ دُونِهِ آلِهَةً إِنْ يُرِدْنِ الرَّحْمَنُ بِضُرٍّ لَا تُغْنِ عَنِّي شَفَاعَتُهُمْ شَيْئًا وَلَا يُنْقِذُونِ
আ আত্তাখিযু মিন্ দূনিহী য় আ- লিহাতান্ ইঁইয়্যুরির্দ্নি রহমা-নু বির্দ্বুরিল্ লা-তুগ্নি ‘আন্নী শাফা-‘আতুহুম্ শাইয়াঁও অলা-ইয়ুন্ক্বিযূন্।

إِنِّي إِذًا لَفِي ضَلَالٍ مُبِينٍ
ইন্নী য় ইযাল্লাফী দ্বলা-লিম্ মুবীন্।

إِنِّي آمَنْتُ بِرَبِّكُمْ فَاسْمَعُونِ
ইন্নী য় আ-মান্তু বিরব্বিকুম্ ফাস্মা‘ঊন্।

قِيلَ ادْخُلِ الْجَنَّةَ قَالَ يَا لَيْتَ قَوْمِي يَعْلَمُونَ
ক্বীলাদ্ খুলিল্ জ্বান্নাহ্; ক্ব-লা ইয়ালাইতা ক্বওমী ইয়া’লামূন্।

بِمَا غَفَرَ لِي رَبِّي وَجَعَلَنِي مِنَ الْمُكْرَمِينَ
বিমা-গফারলী রব্বী অ জ্বা‘আলানী মিনাল্ মুক্রমীন্।

وَمَا أَنْزَلْنَا عَلَى قَوْمِهِ مِنْ بَعْدِهِ مِنْ جُنْدٍ مِنَ السَّمَاءِ وَمَا كُنَّا مُنْزِلِينَ
অমা য় আন্যাল্না ‘আলা- ক্বওমিহী মিম্ বা’দিহী মিন্ জুন্দিম্ মিনাস্ সামা-য়ি অমা- কুন্না-মুন্যিলীন্।

إِنْ كَانَتْ إِلَّا صَيْحَةً وَاحِدَةً فَإِذَا هُمْ خَامِدُونَ
ইন্ কা-নাত্ ইল্লা-ছোয়াইহাতাঁও ওয়া-হিদাতান্ ফাইযা-হুম্ খ-মিদূন্।

يَا حَسْرَةً عَلَى الْعِبَادِ مَا يَأْتِيهِمْ مِنْ رَسُولٍ إِلَّا كَانُوا بِهِ يَسْتَهْزِئُونَ
ইয়া-হাস্রতান্ ‘আলাল্ ‘ইবা-দি মা-ইয়াতীহিম্ র্মি রসূলিন্ ইল্লা-কা-নূ বিহী ইয়াস্তাহ্যিয়ূন্।

أَلَمْ يَرَوْا كَمْ أَهْلَكْنَا قَبْلَهُمْ مِنَ الْقُرُونِ أَنَّهُمْ إِلَيْهِمْ لَا يَرْجِعُونَ
আলাম্ ইয়ারও কাম্ আহ্লাক্না-ক্বব্লাহুম্ মিনাল্ কুরূনি আন্নাহুম্ ইলাইহিম্ লা-ইর্য়াজ্বি‘ঊন্।

وَإِنْ كُلٌّ لَمَّا جَمِيعٌ لَدَيْنَا مُحْضَرُونَ
অইন্ কুল্লুল্লাম্মা-জ্বামী‘উল্লাদাইনা-মুহ্দ্বোয়ারূন্।

وَآيَةٌ لَهُمُ الْأَرْضُ الْمَيْتَةُ أَحْيَيْنَاهَا وَأَخْرَجْنَا مِنْهَا حَبًّا فَمِنْهُ يَأْكُلُونَ
অ আ-ইয়াতু ল্লাহুমুল্ র্আদুল্ মাইতাতু আহ্ইয়াইনা-হা অ আখ্রজনা-মিন্হা-হাব্বান্ ফামিন্হু ইয়াকুলূন্।

وَجَعَلْنَا فِيهَا جَنَّاتٍ مِنْ نَخِيلٍ وَأَعْنَابٍ وَفَجَّرْنَا فِيهَا مِنَ الْعُيُونِ
অজ্বা‘আল্না- ফীহা-জ্বান্না-তিম্ মিন্ নাখীলিঁও অআ’না বিঁও অফার্জ্জ্বানা-ফীহা-মিনাল্ ‘উইয়ূন্।

لِيَأْكُلُوا مِنْ ثَمَرِهِ وَمَا عَمِلَتْهُ أَيْدِيهِمْ أَفَلَا يَشْكُرُونَ
লিয়াকুলূ মিন্ ছামারিহী অমা ‘আমিলাত্হু আইদীহিম্; আফালা-ইয়াশ্কুরূন্।

سُبْحَانَ الَّذِي خَلَقَ الْأَزْوَاجَ كُلَّهَا مِمَّا تُنْبِتُ الْأَرْضُ وَمِنْ أَنْفُسِهِمْ وَمِمَّا لَا يَعْلَمُونَ
সুব্হা-নাল্লাযী খলাক্বল্ আয্ওয়াজ্বা কুল্লাহা-মিম্মা-তুম্বিতুল্ র্আদু অমিন্ আন্ফুসিহিম্ অমিম্মা-লা-ইয়া’লামূন্।

وَآيَةٌ لَهُمُ اللَّيْلُ نَسْلَخُ مِنْهُ النَّهَارَ فَإِذَا هُمْ مُظْلِمُونَ
অআ-ইয়াতুল্লা হুমুল্ লাইলু নাস্লাখু মিন্ হুন্নাহা-র ফাইযা-হুম্ মুজ্লিমূন্

وَالشَّمْسُ تَجْرِي لِمُسْتَقَرٍّ لَهَا ذَلِكَ تَقْدِيرُ الْعَزِيزِ الْعَلِيمِ
অশ্শাম্সু তাজ্ব্রী লিমুস্তার্ক্বরিল্লাহা-; যা-লিকা তাকদীরুল্ ‘আযীযিল্ ‘আলীম্।

وَالْقَمَرَ قَدَّرْنَاهُ مَنَازِلَ حَتَّى عَادَ كَالْعُرْجُونِ الْقَدِيمِ
অল্ ক্বমার ক্বর্দ্দানা-হু মানা-যিলা হাত্তা- ‘আ-দা কাল্ ‘র্উজুনিল্ ক্বদীম্।

لَا الشَّمْسُ يَنْبَغِي لَهَا أَنْ تُدْرِكَ الْقَمَرَ وَلَا اللَّيْلُ سَابِقُ النَّهَارِ وَكُلٌّ فِي فَلَكٍ يَسْبَحُونَ
লাশ্ শাম্সু ইয়াম্বাগী লাহা য় আন্ তুদ্রিকাল্ ক্বমার অলাল্লাইলু সা-বিকুন্ নাহার্-; অ কুল্লুন্ ফী ফালাকিইঁ ইয়াস্বাহূন্।

وَآيَةٌ لَهُمْ أَنَّا حَمَلْنَا ذُرِّيَّتَهُمْ فِي الْفُلْكِ الْمَشْحُونِ
অ আ-ইয়াতুল্লাহুম্ আন্না-হামাল্না র্যুরিয়্যাতাহুম্ ফিল্ ফুল্কিল্ মাশ্হূন্।

وَخَلَقْنَا لَهُمْ مِنْ مِثْلِهِ مَا يَرْكَبُونَ
অখলাক্ব্না-লাহুম্ মিম্ মিছ্লিহী মা-ইর্য়াকাবূন্।

وَإِنْ نَشَأْ نُغْرِقْهُمْ فَلَا صَرِيخَ لَهُمْ وَلَا هُمْ يُنْقَذُونَ
অইন্ নাশানুগ্রিক হুম্ ফালা-ছোয়ারীখ লাহুম্ অলা-হুম্ ইয়ুন্ক্বযূন্।

إِلَّا رَحْمَةً مِنَّا وَمَتَاعًا إِلَى حِينٍ
ইল্লা-রহ্মাতাম্ মিন্না- অমাতা-‘আন্ ইলা-হীন্।

وَإِذَا قِيلَ لَهُمُ اتَّقُوا مَا بَيْنَ أَيْدِيكُمْ وَمَا خَلْفَكُمْ لَعَلَّكُمْ تُرْحَمُونَ
অইযা-ক্বীলা লাহুমুত্তাকু মা-বাইনা আইদীকুম্ অমা-খল্ফাকুম্ লা‘আল্লাকুম্ র্তুহামূন্।

وَمَا تَأْتِيهِمْ مِنْ آيَةٍ مِنْ آيَاتِ رَبِّهِمْ إِلَّا كَانُوا عَنْهَا مُعْرِضِينَ
অমা-তাতীহিম্ মিন্ আ-ইয়া-তীম্ মিন্ আ-ইয়া-তি রব্বিহিম্ ইল্লা-কা-নূ ‘আন্হা-মু’রিদ্বীন্।

وَإِذَا قِيلَ لَهُمْ أَنْفِقُوا مِمَّا رَزَقَكُمُ اللَّهُ قَالَ الَّذِينَ كَفَرُوا لِلَّذِينَ آمَنُوا أَنُطْعِمُ مَنْ لَوْ يَشَاءُ اللَّهُ أَطْعَمَهُ إِنْ أَنْتُمْ إِلَّا فِي ضَلَالٍ مُبِينٍ36.47
অ ইযা- ক্বীলা লাহুম্ আনফিকু মিম্মা-রযাক্ব কুমুল্লা-হু ক্ব-লাল্লাযীনা কাফারূ লিল্লাযীনা আ-মানূ য় আনুত্ব‘ইমু মাল্লাও ইয়াশা-য়ুল্লা-হু আত্ব্‘আমাহূ য় ইন্ আন্তুম্ ইল্লা-ফী দ্বোয়ালা-লিম্ মুবীন্।

وَيَقُولُونَ مَتَى هَذَا الْوَعْدُ إِنْ كُنْتُمْ صَادِقِينَ
অ ইয়াকুলূনা মাতা-হা-যাল্ ওয়া’দু ইন্ কুন্তুম্ ছোয়া-দিক্বীন্

مَا يَنْظُرُونَ إِلَّا صَيْحَةً وَاحِدَةً تَأْخُذُهُمْ وَهُمْ يَخِصِّمُونَ
মা-ইয়ান্জুরূনা ইল্লা-ছোয়াইঁহাতাওঁ ওয়া-হিদাতান্ তাখুযুহুম্ অহুম্ ইয়াখিছ্ছিমূন্।

فَلَا يَسْتَطِيعُونَ تَوْصِيَةً وَلَا إِلَى أَهْلِهِمْ يَرْجِعُونَ
ফালা-ইয়াস্তাত্বী‘ঊনা তাওছিয়াতাঁও অলা য় ইলা য় আহ্লিহিম্ ইর্য়াজ্বি‘ঊন্।

وَنُفِخَ فِي الصُّورِ فَإِذَا هُمْ مِنَ الْأَجْدَاثِ إِلَى رَبِّهِمْ يَنْسِلُونَ
অনুফিখ ফিছ্ ছূরি ফাইযা-হুম্ মিনাল্ আজদা-ছি ইলা-রব্বিহিম্ ইয়ান্সিলূন্।

قَالُوا يَا وَيْلَنَا مَنْ بَعَثَنَا مِنْ مَرْقَدِنَا هَذَا مَا وَعَدَ الرَّحْمَنُ وَصَدَقَ الْمُرْسَلُونَ
ক্ব-লূ ইয়া-অইলানা-মাম্ বা‘আছানা-মিম্ র্মাক্বদিনা-,হা-যা-মা-অ‘আর্দা রহ্মা-নু অ ছদাক্বাল্ র্মুসালূন্।

إِنْ كَانَتْ إِلَّا صَيْحَةً وَاحِدَةً فَإِذَا هُمْ جَمِيعٌ لَدَيْنَا مُحْضَرُونَ
ইন্ কা- নাত্ ইল্লা- ছোয়াইহাতাঁও ওয়া-দাহিদাতান্ ফাইযা-হুম্ জ্বামী‘উল্ লাদাইনা-মুহ্দ্বোয়ারূন্।

فَالْيَوْمَ لَا تُظْلَمُ نَفْسٌ شَيْئًا وَلَا تُجْزَوْنَ إِلَّا مَا كُنْتُمْ تَعْمَلُونَ
ফাল্ ইয়াওমা লা-তুজ্লামু নাফ্সুন্ শাইয়াঁও অলা-তুজযাওনা ইল্লা-মা-কুন্তুম্ তা’মালূন্।

إِنَّ أَصْحَابَ الْجَنَّةِ الْيَوْمَ فِي شُغُلٍ فَاكِهُونَ
ইন্না আছ্হা-বাল্ জ্বান্নাতিল্ ইয়াওমা ফী শুগুলিন্ ফাকিহূন্।

هُمْ وَأَزْوَاجُهُمْ فِي ظِلَالٍ عَلَى الْأَرَائِكِ مُتَّكِئُونَ
হুম্ অআয্ওয়া-জুহুম্ ফী জিলা-লিন্ ‘আলাল্ আর-য়িকি মুত্তাকিয়ূন্।

لَهُمْ فِيهَا فَاكِهَةٌ وَلَهُمْ مَا يَدَّعُونَ
লাহুম্ ফীহা-ফা-কিহাতুঁও অলাহুম্ মা- ইয়াদ্দা‘ঊন্।

سَلَامٌ قَوْلًا مِنْ رَبٍّ رَحِيمٍ
সালা-মুন্ ক্বওলাম্ র্মি রর্ব্বি রহীম্।

وَامْتَازُوا الْيَوْمَ أَيُّهَا الْمُجْرِمُونَ
ওয়াম্তা-যুল্ ইয়াওমা আইয়ুহাল্ মুজরিমূন্।

أَلَمْ أَعْهَدْ إِلَيْكُمْ يَا بَنِي آدَمَ أَنْ لَا تَعْبُدُوا الشَّيْطَانَ إِنَّهُ لَكُمْ عَدُوٌّ مُبِينٌ
আলাম্ আ’হাদ্ ইলাইকুম্ ইয়া-বানী য় আ-দামা আল্লা-তা’বুদুশ্ শাইত্বোয়া-না ইন্নাহূ লাকুম্ ‘আদুওয়্যুম্ মুবীন্।

وَأَنِ اعْبُدُونِي هَذَا صِرَاطٌ مُسْتَقِيمٌ
অআ নি’বুদূনী হা-যা-ছির- তুম্ মুস্তাক্বীম্।

وَلَقَدْ أَضَلَّ مِنْكُمْ جِبِلًّا كَثِيرًا أَفَلَمْ تَكُونُوا تَعْقِلُونَ
অলাক্বদ্ আদ্বোয়াল্লা মিন্কুম্ জ্বিবিল্লান্ কাছীর-; আফালাম্ তাকূনূ তা’ক্বিলূন্।

هَذِهِ جَهَنَّمُ الَّتِي كُنْتُمْ تُوعَدُونَ
হা-যিহী জ্বাহান্নামুল্লাতী কুন্তুম্ তূ‘আদূন্।

اصْلَوْهَا الْيَوْمَ بِمَا كُنْتُمْ تَكْفُرُونَ
ইছ্লাওহাল্ ইয়াওমা বিমা-কুন্তুম্ তাক্ফুরূন্।

الْيَوْمَ نَخْتِمُ عَلَى أَفْوَاهِهِمْ وَتُكَلِّمُنَا أَيْدِيهِمْ وَتُكَلِّمُنَا أَيْدِيهِمْ وَتَشْهَدُ أَرْجُلُهُمْ بِمَا كَانُوا يَكْسِبُونَ
আল্ইয়াওমা নাখ্তিমু ‘আলা য় আফ্ওয়া-হিহিম্ অ তুকাল্লিমুনা য় আইদীহিম্ অতাশ্হাদু র্আজুলুহুম্ বিমা-কা-নূ ইয়াক্সিবূন্।

وَلَوْ نَشَاءُ لَطَمَسْنَا عَلَى أَعْيُنِهِمْ فَاسْتَبَقُوا الصِّرَاطَ فَأَنَّى يُبْصِرُونَ
অলাও নাশা-য়ু লাত্বোয়ামাস্না-‘আলা য় আ’ ইয়ুনিহিম্ ফাস্তাবাক্বছ্ ছির-ত্বোয়া ফাআন্না-ইয়ুব্ছিরূন্।

وَلَوْ نَشَاءُ لَمَسَخْنَاهُمْ عَلَى مَكَانَتِهِمْ فَمَا اسْتَطَاعُوا مُضِيًّا وَلَا يَرْجِعُونَ
অলাও নাশা-য়ু লামাসাখ্না-হুম্ ‘আলা-মাকা-নাতিহিম্ ফামাস্ তাত্বোয়া-‘ঊ মুদ্বিয়্যাওঁ অলা- ইর্য়াজ্বি‘ঊন্।

وَمَنْ نُعَمِّرْهُ نُنَكِّسْهُ فِي الْخَلْقِ أَفَلَا يَعْقِلُونَ
অ মান্ নু‘আ র্ম্মিহু নুনাক্কিস্হু ফিল্ খল্ক্ব ; আফালা-ইয়া’ক্বিলূন্।

وَمَا عَلَّمْنَاهُ الشِّعْرَ وَمَا يَنْبَغِي لَهُ إِنْ هُوَ إِلَّا ذِكْرٌ وَقُرْآنٌ مُبِينٌ
অমা-‘আল্লাম্না-হুশ্ শি’রা অমা-ইয়াম্বাগী লাহ্; ইন্ হুওয়া ইল্লা-যিক্রুঁও অক্বর্ আ-নুম্ মুবীন্।

لِيُنْذِرَ مَنْ كَانَ حَيًّا وَيَحِقَّ الْقَوْلُ عَلَى الْكَافِرِينَ
লিইয়ুন্যির মান্ কা-না হাইয়্যাঁও অ ইয়াহিকক্বল্ ক্বওলু ‘আলাল্ কা-ফিরীন্।

أَوَلَمْ يَرَوْا أَنَّا خَلَقْنَا لَهُمْ مِمَّا عَمِلَتْ أَيْدِينَا أَنْعَامًا فَهُمْ لَهَا مَالِكُونَ
আওয়া লাম্ ইয়ারাও আন্না-খলাক্না-লাহুম্ মিম্মা-‘আমিলাত্ আইদীনা য় আন্‘আ-মান্ ফাহুম্ লাহা-মা-লিকূন্।

وَذَلَّلْنَاهَا لَهُمْ فَمِنْهَا رَكُوبُهُمْ وَمِنْهَا يَأْكُلُونَ
অ যাল্লাল্না-হা লাহুম্ ফামিন্হা- রকূবুহুম্ অ মিন্হা-ইয়াকুলূন্।

وَلَهُمْ فِيهَا مَنَافِعُ وَمَشَارِبُ أَفَلَا يَشْكُرُونَ
অলাহুম্ ফীহা-মানা-ফি‘ঊ অমাশা-রিব্; আফালা- ইয়াশ্কুরূন্।

وَاتَّخَذُوا مِنْ دُونِ اللَّهِ آلِهَةً لَعَلَّهُمْ يُنْصَرُونَ
অত্তাখযূ মিন্ দূনিল্লা-হি আ-লিহাতাল্ লা‘আল্লাহুম্ ইয়ুন্ছোয়ারূন্।

لَا يَسْتَطِيعُونَ نَصْرَهُمْ وَهُمْ لَهُمْ جُنْدٌ مُحْضَرُونَ
লা-ইয়াস্তাত্বী‘ঊনা নাছ্রহুম্ অহুম্ লাহুম্ জ্বুন্দুম্ মুহ্দ্বোয়ারূন্।

فَلَا يَحْزُنْكَ قَوْلُهُمْ إِنَّا نَعْلَمُ مَا يُسِرُّونَ وَمَا يُعْلِنُونَ
ফালা- ইয়াহ্যুন্কা ক্বওলুহুম্; ইন্না-না’লামু মা-ইয়ুর্সিরূনা অমা-ইয়ু’লিনূন্।

أَوَلَمْ يَرَ الْإِنْسَانُ أَنَّا خَلَقْنَاهُ مِنْ نُطْفَةٍ فَإِذَا هُوَ خَصِيمٌ مُبِينٌ
আওয়ালাম্ ইয়ারল্ ইন্সা-নু আন্না-খলাক্ব্ না-হু মিন্ নুত্ব্ ফাত্ব্ন্ ফাইযা-হুঅ খছীমুম্ মুবীন্।

وَضَرَبَ لَنَا مَثَلًا وَنَسِيَ خَلْقَهُ قَالَ مَنْ يُحْيِي الْعِظَامَ وَهِيَ رَمِيمٌ
অ দ্বোয়ারাবা লানা-মাছালাঁও অ নাসিয়া খল্ক্বাহ্; ক্ব-লা মাইঁ ইয়ুহ্য়িল্ ‘ইজোয়া-মা অহিয়া রমীম্।

قُلْ يُحْيِيهَا الَّذِي أَنْشَأَهَا أَوَّلَ مَرَّةٍ وَهُوَ بِكُلِّ خَلْقٍ عَلِيمٌ
কুল্ ইয়ুহ্য়ীহাল্লাযী য় আন্শায়াহা য় আও অলা র্মারাহ্; অহুওয়া বিকুল্লি খল্ক্বিন্ ‘আলীমুনি।

الَّذِي جَعَلَ لَكُمْ مِنَ الشَّجَرِ الْأَخْضَرِ نَارًا فَإِذَا أَنْتُمْ مِنْهُ تُوقِدُونَ
ল্লাযী জ্বা‘আলা লাকুম্ মিনাশ্ শাজ্বারিল্ আখ্দ্বোয়ারি না-রন্ ফাইযা য় আন্তুম্ মিন্হু তূক্বিদূ ন্।

أَوَلَيْسَ الَّذِي خَلَقَ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ بِقَادِرٍ عَلَى أَنْ يَخْلُقَ مِثْلَهُمْ بَلَى وَهُوَ الْخَلَّاقُ الْعَلِيمُ
আওয়া লাইসাল্লাযী খলাক্বস্ সামা-ওয়া-তি অল্ র্আদ্বোয়া বিক্ব-দিরিন্ ‘আলা য় আইঁ ইয়াখ্লুক্ব মিছ্লাহুম্; বালা-অহুওয়াল্ খল্লাকুল্ ‘আলীম্।

إِنَّمَا أَمْرُهُ إِذَا أَرَادَ شَيْئًا أَنْ يَقُولَ لَهُ كُنْ فَيَكُونُ
ইন্নামা য় আম্রুহূ য় ইযা য় আর-দা শাইয়ান্ আইঁ ইয়াকুলা লাহূ কুন্ ফাইয়াকূন্

فَسُبْحَانَ الَّذِي بِيَدِهِ مَلَكُوتُ كُلِّ شَيْءٍ وَإِلَيْهِ تُرْجَعُونَ
ফাসুব্হা-নাল্ লাযী বিয়াদিহী মালাকূতু কুল্লি শাইয়িঁও অ ইলাইহি র্তুজ্বাঊ’ন্
 সূরা আয়াতুল কুরসী

বাংলা উচ্চারণঃ
আল্লাহু লা ইলাহা ইল্লা হুয়াল হাইয়্যুল ক্বইয়্যুমু লা তা খুজুহু সিনাত্যু ওয়ালা নাউম। লাহু মা ফিছছামা ওয়াতি ওয়ামা ফিল আরদ্। মান যাল্লাযী ইয়াস ফায়ু ইন দাহু ইল্লা বি ইজনিহি ইয়া লামু মা বাইনা আইদিহিম ওয়ামা খল ফাহুম ওয়ালা ইউ হিতুনা বিশাই ইম্ মিন ইল্ মিহি ইল্লা বিমা সাআ ওয়াসিয়া কুরসিইউ হুস ছামা ওয়াতি ওয়াল আরদ্ ওয়ালা ইয়া উদুহু হিফজুহুমা ওয়াহুয়াল আলিয়্যূল আজীম।



বাংলা অর্থঃ

আল্লাহ ছাড়া অন্য কোন উপাস্য নেই, তিনিই চিরঞ্জীব; যাবতীয় সবকিছুর ধারক । তাঁকে তন্দ্রাও স্পর্শ করতে পারে না এবং নিদ্রাও নয় । আসমান ও যমীনে যা কিছু রয়েছে, সবই তাঁর । কে আছ এমন, যে সুপারিশ করবে তাঁর কাছে তাঁর অনুমতি ছাড়া ? দৃষ্টির সামনে কিংবা পিছনে যা কিছু রয়েছে সে সবই তিনি জানেন । তাঁর জ্ঞানসীমা থেকে তারা কোন কিছুকেই পরিবেষ্টিত করতে পারে না, কিন্তু যতটুকু তিনি ইচ্ছা করেন । তাঁর সিংহাসন সমস্ত আসমান ও যমীনকে পরিবেষ্টিত করে আছে । আর সেগুলোকে ধারণ করা তাঁর পক্ষে কঠিন নয় । তিনিই সর্বোচ্চ এবং সর্বাপেক্ষা মহান । [২:২৫৫]
 সূরা আল লাইল

বাংলা উচ্চারণঃ
ওয়াল্লাইলি ইযা ইয়াগশা। ওয়ান্নাহারি ইযা তাজাল্লা। ওয়ামা খালাক্বায্ যাকারা ওয়াল উনসা। ইন্না সা’ইয়াকুম লাশাত্তা। ফাআম্মা মান্ আ’তা ওয়াত্তাকা। ওয়া কাযযাবা বিলহুসনা। ফাসানুইয়াসসিরুহু লিলিউসরা। ওয়া আম্মা মাম বাখিলা ওয়াসতাগনা। ওয়া কাযযাবা বিলহুসনা। ফাসানুইয়াসসিরুহু লিলউসরা। ওয়ামা ইউগনী আনহু মুলুহু ইযা তারাক্কা। ইন্না আলাইনা লালহুদা। ওয়া ইন্না লানা লালআখিরাতা ওয়ালা ঊলা। ফাআনযারতুকুম নারান তালাযযা। লা ইয়াসলাহা ইল্লাল আশকা। আল্লাযী কাযযাবা ওয়া তাওয়াল্লা। ওয়া সাইউজান্নাবুহাল আতকা। আল্লাযী ইউ’তী মা লাহু ইয়াতাযাককা। ওয়ামা লিআহাদিন ইনদাহু মিন নি’মাতিন তুজযা।
ইল্লাবতিগাআ ওয়াজহি রাব্বিহিল আ’লা। ওয়ালা সাওফা ইয়ারদা।



বাংলা অর্থঃ

শপথ রাতের যখন তা সূর্যকে আচ্ছন্ন করিয়া ফেলে। আর দিবসের যখন তা আলোকিত হয়। আর তাঁহার যিনি নর ও নারী সৃষ্টি করিয়াছেন। নিশ্চয়ই তোমাদের প্রচেষ্টা বিভিন্নমুখী। অতঃপর যে আল্লাহর রাহে দান করিয়াছে এবং আল্লাহকে ভয় করিয়াছে আর ভালো কথা (ইসলাম) অবিশ্বাস করিয়াছে, আমি তাহাকে কষ্টদায়ক বস্তু (জাহান্নাম)-এর জন্য আসবাব দান করিব। আর তাহার ধন-সম্পদ কোন কাজে আসিবে না, যখন সে জাহান্নামে পতিত হইবে। বাস্তবিকই আমার দায়িত্ব শুধু রাস্তা দেখাইয়া দেওয়া। আর আমারই আয়ত্তে রহিয়াছে পরকাল ও ইহকাল। অনন্তর আমি তোমাদিগকে এক প্রজ্বলিত অগ্নির ভয় দেখায়াছি। তাহাতে কেবল সেই হতভাগাই প্রবেশ করিবে যে সত্য ধর্ম অবিশ্বাস করিয়াছে এবং তাহা হইতে মুখ ফিরাইয়া রাখিয়াছে। আর তাহা হইতে এমন ব্যাক্তিকে দূরে রাখা হইবে, যে অনন্ত পরহেজগার। যে নিজ ধন-সম্পদ শুধু এই নিয়তে দান করে, যেন সে পাক হয় (অর্থাৎ শুধু আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভই তাহার উদ্দেশ্য। আর তাহার বিষয়ে কারো কোন এহসান ছিল না যে,
তাহার প্রতিদান দিতে হয় নিজের মহোন্নত প্রভুর সন্তুষ্টি সাধন ব্যতীত, আর অতি সত্বর সে সন্তুষ্ট হইয়া যাইবে।)
সূরাহ ইনশিরাহ
বাংলা উচ্চারণঃ
আলাম নাশরাহ লাকা সোয়াদরাকা, ওয়া ওয়াদা’না আনকা বিযরাক, আল্লাযী আনক্বাদা যাহরাক, ওয়া রাফা’না লাকা যিকরাক,
ফাইন্না মাআল উসরি ইউসরা, ইন্না মাআল উসরি ইউসরা, ফাইযা ফারগতা ফানসাব, ওয়া ইলা রাব্বিকা ফারগাব।



বাংলা অর্থঃ

আমি কি তোমার জন্য তোমার বক্ষ প্রশস্ত করে দেইনি? আমি লাঘব করছি তোমার সেই ভার। যা তোমার মেরুদণ্ড ভেঙ্গে দিয়েছিল এবং আমি তোমার জন্য তোমার স্তব-স্তুতি সমুন্নত করেছি। কষ্টের সঙ্গেই তো স্বস্তি আছে। নিশ্চয়ই আছে কষ্টের সঙ্গে স্বস্তি,
অতএব যখন আবসর পাও, পরিশ্রম কর এবং তোমার প্রতিপালকের প্রতি মনোনিবেশ কর।
 সূরা ওয়াদদোহা

বাংলা উচ্চারণঃ

ওয়াদদোহা, ওয়াল্লাইলি ইযা সাজা, মা ওয়াদ্দাআকা রাব্বুকা ওয়া মা ক্বালা, ওয়া লালআখিরাতু খাইরুল্লাকা মিনাল ঊলা, ওয়া লাসাওকা ইউ’ত্বীকা রাব্বুকা ফাতারদা, আলাম ইয়াজিদকা ইয়াতীমান ফাআওয়া, ওয়া জাদাকা দোআল্লান্ ফাহাদা, ওয়া ওয়াজদাকা আইলান্ ফাআগনা, ফাআম্মাল
ইয়াতীমা ফালা তাক্বহার, ওয়া আম্মাস সায়েলা ফালা তানহার, ওয়া আম্মা বিনি’মাতি রাব্বিকা ফাহাদ্দিস।


বাংলা অর্থঃ

শপথ পূর্বাহ্নের, শপথ রজনীর যখন তা হয় নিঝুম, তোমার প্রতিপালক তোমাকে পরিত্যাগ করেননি এবং তোমার প্রতি বিরূপও হননি, তোমার জন্য পরকলেই ইহকাল হইতে বহু গুণে শ্রেয়। তোমার প্রতিপালক তোমাকে অনুগ্রহ করবেন এবং তুমি সন্তুষ্ট হবে, তিনি কি তাকে পিতৃহীন অবস্থায় পাননি, অতঃপর তোমাকে আশ্রয় দান করেছেন, তিনি তোমাকে পান পথহারা, অতঃপর পথ-নির্দেশ করেন, তিনি তোমাকে পান নিঃস্ব অবস্থায়, অতঃপর অভাবমুক্ত করেন, সুতরাং তুমি পিতৃহীনদের
প্রতি রুঢ় হইও না এবং সাহায্যপ্রার্থীকে ধমক দিও না, তুমি তোমার প্রতিপালককে অনুগ্রহের কথা জানিয়ে দাও।
  সূরা ত্বিন

বাংলা উচ্চারণঃ

ওয়াত্তীন ওয়াযযাইতুন, ওয়া তূর সিনীনা ওয়া হাযাল্ বালাদিল আমীন, লাকাদ্ খালাকনাল ইনসানা ফী আহসানি তাকবীম, সুম্মা রাদাদনাহু
আসফালা সাফিলিন, ইল্লাল্লাযীনা আমানূ ওয়া আমিলু সসোলিহাতি ফালাহুম্ আজরুন গাইরু মামনুন।


বাংলা অর্থঃ
শপথ আনজীর ও যয়তুনের এবং শপথ সিনীনের এবং শপথ এই নিরাপদ নগরীর, আমি সৃষ্টি করেছি মানুষকে সুন্দরতম আবয়বে, অতঃপর আমি তাকে হীনতাগ্রস্থদের হীনতমে পরিণত করেছি, কিন্তু তাদেরকে নয় যারা বিশ্বাসী ও সৎকর্মপরায়ণ, তাদের জন্য আছে নিরবিচ্ছিন্ন পুরস্কার,
সুতরাং এরপর কিসে তোমাকে কেয়ামতে অবিশ্বাস করে? আল্লাহ্‌ কি বিচারকদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ বিচারক নন?
 সূরা ক্বদর
বাংলা উচ্চারণঃ

ইন্না আনযানলাহু ফী লাইলাতিল ক্বাদরি, ওয়া মা আদরাকা মা লাইলাতুল ক্বদরি, লাইলাতুল ক্বাদরি খাইরুম মিন আলফি শাহরিন, তানাযযালুল
মালায়িকাতু ওয়াররুহু ফীহা বিইযনি রাব্বিহিম মিন কুল্লি আমরিন, সালামুন হিয়া হাত্তা মাতলায়িল ফাজরি।


বাংলা অর্থঃ

আমি ইহা (কোরআন) অবতীর্ণ করেছি মহিমান্বিত রজনীতে, মহিমান্বিত রজনী সম্পর্কে আপনি কি জানেন? মহিমান্বিত রজনী হাজার মাস অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ, সেই রাতে ফেরেশতাগণ ও জিবরাঈল (আঃ) তাদের প্রতিপালকের
আদেশক্রমে অবতীর্ণ হয় প্রত্যেক মঙ্গলময় বস্তু নিয়ে, ঊষার আবির্ভাব পর্যন্ত সেই রজনী শান্তিপ্রসূ।

 সূরা যিলযাল

বাংলা উচ্চারণঃ

ইযা যুলযিলাতিল আরদু যিলযালাহা, ওয়া আখরাজাতিল আরদু অসকালাহা ওয়া কালাল ইনসানু মা লাহা, ইয়াওমাইযিন তুহাদ্দিসু আখবারাহা, বিআন্না রাব্বাকা আওহা লাহা, ইয়াওমাইযিইঁ ইয়াসদুরুন্নাসু আশতাতাল্ লিইউরাও আ’মালাহুম,
ফামাইঁ ইয়া’মাল মিসকালা যাররাতিন খাইরাঁই ইয়ারাহ্, ওয়া মাইঁ ইয়ামাল মিসকালা যাররাতিন শাররইঁ ইয়ারাহ্।


বাংলা অর্থঃ

যখন পৃথিবী আপন কম্পনে কম্পিত হবে আর পৃথিবী যখন তার বোঝা বের করে দিবে এবং মানুষ বলবে পৃথিবীর কি হল? সেদিন পৃথিবী তার সব বৃত্তান্ত বর্ণনা করবে, কারণ তোমার প্রতিপালক তাকে আদেশ করবেন, সেদিন মানুষ ভিন্ন ভিন্ন দলে বের হবে যাতে তারা নিজেদের আমলসমূহ দেখতে পায়,
কেউ অণু পরিমাণ সৎ কাজ করলে তা দেখবে এবং অণু পরিমাণ অসৎ কাজ করলে তাও দেখবে।
 সূরা ক্বারিআহ্

বাংলা উচ্চারণঃ
আ-ক্বারেআতু, মাল-ক্বারেআহ্, ওয়ামা আদরাকা মাল-ক্বারিআহ্, ইয়ওমা-ইয়াকূনুন্নাসু কালফারাশিল্ মাবসূস,
ওয়া-তাকূনুল জিবালু কালইহনিল মানফূশ, ফাআম্মা মান সাকুলাত মাওয়াযীনুহু ফাহুয়া ফী ঈশাতির্ রাদিয়াহ্,
ওয়া আম্মা মান্ খাফফাত্ মাওয়াযীনুহু, ফাউম্মুহু হাবিয়াহ্, ওয়ামা আদরাকা মা-হিয়াহ্, নারুন হামিয়াহ্।



বাংলা অর্থঃ
মহাপ্রলয়, মহাপ্রলয় কি? মহাপ্রলয় সম্বন্ধে তুমি কি জান? সেইদিন মানুষ হবে বিক্ষিপ্ত পঙ্গপালের মতো এবং পর্বতসমূহ হবে ধুনিত রঙ্গিন পশমের মতো, তখন যার পাল্লা ভারী হবে সে লাভ করিবে সন্তোষজনক জীবন,
কিন্তু যার পাল্লা হালকা হবে তার স্থান হবে ‘হাবিয়া’, হাবিয়া কি তা তুমি জান? তা জ্বলন্ত অগ্নি।
 সূরা আল-আসর

বাংলা উচ্চারণঃ

ওয়াল আ’সরি ইন্নাল ইনসানা লাফী খুসরিন,
ইল্লালাযীনা আমানূ ওয়া আ’মিলুসসালিহাতি ওয়া তাওয়াসাও বিলহাককি ওয়া তাওয়াসাও বিসসাবরি।


বাংলা অর্থঃ

আসরের সময়ের শপথ, নিশ্চয়ই মানুষ অনিষ্ঠের মধ্যে আছে, কিন্তু যারা ঈমান এনেছে এবং ভাল কাজ করেছে ও একে অপরের হক (সত্য) কাজ করার জন্য এবং ধৈর্য অবলম্বন করার জন্য উপদেশ দিয়েছে (তারা নয়)।
 সূরা হুমাযাহ

বাংলা উচ্চারণঃ

ওয়াইলুললি কুল্লি হুমাযাতিল লুমাযাতিনিল্লাযী জামাআ মালাওঁ ওয়া আদ্দাদাহ, ইয়াহসাবু আন্না মা লাহু আখলাদাহ, কাল্লা লাইউমবাযান্না ফিল হুমামিত ওয়ামা আদরাকা মাল হুতামাহ, নুরুল্লাহিল মুকাদাতুল্লাতী তাত্তোআলিউ আলাল আফয়িদাহ,
ইন্নাহা আলাইহিম মু’সাদাতুন ফী আমাদিম মুমাদ্দাদাহ্।


বাংলা অর্থঃ
প্রত্যেক পশ্চাতে নিন্দাকারী ও সম্মুখে দোষারোপকারীর জন্য আক্ষেপ (ওয়ালা দোযখ)! যে অত্যন্ত লোভবশতঃ অর্থ জমা করে এবং বার বার গণনা করে। সে মনে করে, তার ধন-সম্পদ চিরকাল তার কাছে থাকবে। কখনও নয়, তাকে হোতামা দোযখে নিক্ষেপ করা হবে, আপনার কি জানা আছে যে হোতামা কি? তা আল্লাহ্‌র
প্রজ্বলিত অগ্নি, যা হৃদয়ের উপর উপস্থিত হবে, নিশ্চয়ই তাতে তাদেরকে বাঁধা দেওয়া হইবে লম্বা খামের মধ্যে।

 সূরা আল-ফীল
বাংলা উচ্চারণঃ

আলাম তারা কাইফা ফা’য়ালা রাব্বুকা বিআসহা বিল ফিল, আলাম ইয়াজআল কাইদাহুম ফি তাদলিলীওঁ ওয়া আরসালা
আলাইহিম ত্বাইরান আবাবীল, তারমিহিম বিহিজারাতিম মিন সিজ্জিলিন, ফাজায়ালাহুম কাআসফিম মা’কুল।


বাংলা অর্থঃ

তুমি কি দেখনি, তোমার রব হাতিওয়ালাদের সাথে কি ব্যাবহার করেছেন? তিনি কি তাদের চালাকি বানচাল করে দেন নি?
আর তিনি তাদের উপর ঝাঁকে ঝাঁকে আবাবীল পাখি পাঠালেন যারা তাদের উপর পাকা
মাটির তৈরি পাথর ফেলেছিল। ফলে তাদেরকে পশুর চিবানো ভুসির মতো করে দিলেন।
 সূরা আল কুরাইশ

বাংলা উচ্চারণঃ
লি-ইলাফি কুরাইশিন ঈলাফিহিম রিহলাতাশ শিতায়্যি অচ্ছাইফ, ফালইয়া’বুদু রাব্বা হাযাল বাইতিল্লা্যি আত্বয়ামাহুম ম্মিন জুয়িওঁ ওয়া আ-মানাহুম মিন খাউফ।



বাংলা অর্থঃ

যেহেতু কুরাইশরা সুপরিচিত হয়েছে, অর্থাৎ শীতকাল ও গরমকালে বিদেশ সফরে তাদের পরিচিতি হয়েছে,
সেহেতু এ ক্বাবা ঘরের মালিক(আল্লাহ্‌) এর ইবাদত তাদের করা উচিৎ, যিনি তাদেরকে খিদে থেকে বাঁচিয়ে খাবার দিয়েছেন এবং ভয় থেকে বাঁচিয়ে নিরাপদে রেখেছেন।

সূরা আল মাঊন

বাংলা উচ্চারণঃ
আরআইতাল্লাজী ইউকাযযিবু বিদ্দীন, ফাযালিকাল্লাযী ইয়াদু’উল ইয়াতীম, ওয়ালা ইয়াহুদ্দু আলা ত্বোয়ামিল মিসকিন,
ফাওয়াইলুল লিল মুসাল্লিন, আল্লাযিনা হুম আন্ সালা-তিহীম সাহুনাল্লাজীনা হুম ইউরা-উনা ওয়া ইয়ামনাউনাল মা’ঊন।



বাংলা অর্থঃ

তুমি কি তাকে দেখেছ, যে (আখিরাতের) বদলাকে মিথ্যা সাব্যস্ত করে?
ঐ লোকই তো ইয়াতীমকে ধাক্কা দিয়ে তাড়ায় এবং মিসকীনের খাবার দিতে উৎসাহ দেয় না।
অতঃপর ঐ নামাযীদের জন্য ধ্বংস, যারা তাদের নামাযের ব্যাপারে অবহেলা করে,
যারা লোক দেখানো কাজ করে। এমনকি সাধারণ ব্যাবহারের জিনিসও অন্যকে দেয় না।
  সূরা আল কাওসার
বাংলা উচ্চারণঃ

ইন্না আ’তাইনা কাল কাওসার, ফাসাল্লিলি রাব্বিকা ওয়ানহার, ইন্না শানিয়্যাকা হুয়াল আবতার।


বাংলা অর্থঃ

হে রাসূল নিশ্চয়ই আমি আপনাকে ‘কাওসার’ দান করেছি, সুতরাং আপনি আপনার রবের জন্যই নামায আদায় করুন এবং
কুরবানী করুন, আসলে আপনার দুশমনই জড়-কাটা(শিকড়-ছেঁড়া বা লেজ-কাটা)।
সূরা আল-কাফিরুন

বাংলা উচ্চারণঃ
কূল ইয়া আইয়্যূহাল কাফিরুনা লা’আবুদু মা আবুদুন, ওয়ালা আনতুম আবিদুনা মা-আ’বুদ,
ওয়ালা আনা আবিদুম মা-আবাদতুম, ওয়ালা আনতুম আবিদুনা মা-আ’বুদ, লাকুম দ্বীনুকুম ওয়ালিয়া দ্বীন।

বাংলা অর্থঃ
হে রাসূল আপনি বলে দিনঃ হে কাফিররা! তোমরা যাদের ইবাদত কর আমি তাদের ইবাদত করিনা।
আর আমি যাঁর ইবাদত করি, তোমরা তাঁর ইবাদতকারী নও। তোমরা যাদের ইবাদত করছ,
আমি তাদেরও ইবাদতকারী নই। আর আমি যাঁর ইবাদত করি,
তোমরাও তাঁর ইবাদতকারী নও। তোমাদের জন্য তোমাদের দ্বীন আর আমার জন্য আমার দ্বীন।

সূরা নাসর
বাংলা উচ্চারণঃ

ইযা-জা-আ নাসরুল্লাহি ওয়াল ফাৎহ, ওয়ারাআই তান্নাসা ইয়াদ খুলুনা ফি দীনিল্লাহী
আফওয়াজা, ফাসাব্বিহ বিহামদি রাব্বিকা ওয়াসতাগ ফিরহু, ইন্নাহু কানা তাওয়্যাবা।



বাংলা অর্থঃ
যখন আল্লাহর সাহায্য এবং বিজয় আসবে।
এবং (তখন) তুমি মানুষদের দেখবে, তারা দলে দলে আল্লাহর দ্বীনে প্রবেশ করছে।
অতঃপর তুমি প্রশংসাসহ তোমার ‘রব’-এর পবিত্রতা (ও মহিমা) ঘোষণা কর এবং তাঁর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা কর; নিশ্চয়ই তিনি তওবা কবুলকারী (পরম ক্ষমাশীল)।
সূরা লাহাব
বাংলা উচ্চারণ: তাব্বাত ইয়াদা আবী লাহাবিওঁ ওয়াতাব্বা মা-আগনা আনহু মালুহু ওয়ামা কাসাব, সাইয়াসালা না-রান জা-তা লাহাবিওঁ ওয়ামরাআতুহু, হাম্মা লাতাল হাতাব, ফী জীদিহা হাবলুম মিম মাসাদ।

বাংলা অর্থঃ পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি
লাহাবের দু’হাত ধ্বংস হল এবং সেও ধ্বংস হয়ে গেল(বিফল হয়ে গেল), তাঁর
মাল ও যা সে কামাই করেছে, তা আর কোন কাজে লাগলো না। শিঘ্রই সে শিখাযুক্ত আগুনে প্রবেশ করবে এবং তার সাথে তার স্ত্রীও আগুনে প্রবেশ করবে, যে কুটনামী করে বেড়ায়। তার ঘারে খেজুর শাখার আঁশের পাকানো দড়ি থাকবে।
সূরা আল-ইখলাস

বাংলা উচ্চারণ:
কূল হুআল্লাহু আহাদ, আল্লাহুস সামাদ, লাম ইয়ালিদ ওয়ালাম ইউলাদ, ওয়ালাম ইয়াকুল্লাহু কুফুওয়ান আহাদ।

বাংলা অর্থঃ পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি
হে রাসুল আপনি বলে দিন তিনিই আল্লাহ্‌, যিনি একক অদ্বিতীয়, আল্লাহ্‌ সবার কাছ থেকে অভাবমুক্ত (আর আল্লাহর কাছে সবাই অভাবী), তাঁর কোন সন্তান নেই; তিনিও কারো সন্তান নন। কেউ তাঁর সাথে তুলনা যোগ্য নয়।
সূরা ফালাক
বাংলা উচ্চারণ:
কূল আউজু বিরাব্বিল ফালাক, মিন শাররি মা খালাক, ওয়ামিন শাররি গাছিকিন ইজা অকাব, ওয়ামিন শাররিন্নাফফাছাতি ফিল উ’কাদি ওয়ামিন শাররি হাসিদিন ইজা হাসাদ।

বাংলা অর্থঃ
পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি ।

হে রাসূল আপনি বলুন, আমি সকাল বেলার রবের নিকট আশ্রয় চাই, যা তিনি সৃষ্টি করেছেন, তার অনিষ্ট থেকে। আর রাতের অন্ধকারের অনিষ্ট থেকে, যখন তা ছেয়ে যায়। এবং গিরায় ফুঁক/ফুঁ দানকারীদের(বা ফুঁক/ফুঁ দানকারিণীদের), আর হিংসুক যখন হিংসা করে, তার অনিষ্ট থেকে।
সূরা নাস
বাংলা উচ্চারণ: কূল আউজু বিরাবিন্নাসি মালিকিন্নাসি ইলাহিন্নাসি, মিন শাররিল ওয়াস ওয়াসিল খান্নাস, আল্লাজী ইউওয়াসবিসু ফী সুদুরিন্নাসি মিনাল জিন্নাতি ওয়ান্নাস।

বাংলা অর্থঃ পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি ।
হে রাসূল আপনি বলুন, আমি আশ্রয় চাই মানুষের রব, মানুষের বাদশাহ, মানুষের আসল মাবুদের কাছে। ঐ কুপরামর্শ দাতার অনিষ্ট থেকে, যে বারবার ফিরে আসে। যে মানুষের দিলে কুপরামর্শ দেয়। সে জীন হোক আর মানুষ হোক।
 সূরা ফাতিহা
বাংলা উচ্চারণঃ বিস্‌মিল্লাহির রাহ্‌মানির রাহীম। আল-হামদু লিল্লাহি রাব্বিল আলামিন। আর রাহমানির রাহিম। মালিকি ইয়াওমিদ্দিন। ই্‌য়াকানাবুদু ওয়া ইয়্যাকা নাসতাইন। ইহ দিনাস সিরাতাল মুস্তাকীম। সিরাতাল লাযিনা আনআমতা আলাইহিম। গইরিল মাগদুবি আলাইহিম ওয়ালাদ দুয়াল্লিন।

বাংলা অর্থঃ
সমস্ত প্রশংসা বিশ্বজগতের প্রতিপালক আল্লাহ্‌রই, যিনি পরম করুণাময়, পরম দয়াময় যিনি বিচার দিনের মালিক। আমরা একমাত্র তোমারই ইবাদত করি এবং শুধুমাত্র তোমারই সাহায্য প্রার্থনা করি। আমাদেরকে সরল পথ দেখাও, সে সমস্ত লোকের পথ, যাদেরকে তুমি নেয়ামত দান করেছ। তাদের পথ নয়, যাদের প্রতি তোমার গজব নাযিল হয়েছে এবং যারা পথভ্রষ্ট হয়েছে।